জন্মদিনের উপহার শেখ হাসিনাকে শত কবিতায় শতায়ু প্রত্যাশা

জাতীয় দেশজুড়ে

কালের ছবি ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫ তম জন্মদিনের উপহার হিসেবে দুই বাংলার ১ শত কবিতার একটি বই প্রকাশিত হয়েছে। বাংলাদেশ এবং ভারতের পশ্চিম বঙ্গের বরেণ্য ১শ কবির কবিতার মাধ্যমে বাংলাদেশের অন্যতম কবি সংগঠক রাশেদ হাওলাদারের সম্পাদনায় ‘শত কবিতায় শতায়ু প্রত্যাশায়’ নামক বইটি প্রকাশিত হয়।

গত সোমবার (১৮ অক্টোবর) রাজধানীর শাহবাগের কবি সুফিয়া কামাল মিলনায়তনে বাংলাদেশ আওয়ামী বাস্তহারা লীগের আয়োজনে এ মোড়ক উন্মোচিত হয়।

কবি রাশেদ হাওলাদার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উদ্বোধক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক জাতিসত্তা কবি মুহাম্মদ নূরুল হুদা এবং প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভাইস-চ্যান্সেলর আ স ম আরেফিন সিদ্দিক।

এছাড়াও সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, ১৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিল (ঢাকা মহানগর দক্ষিণ) এবং কলাবাগান থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম বাবুল, এ্যাডভোকেট এম এ হামিদ খান (সাবেক ভারপ্রাপ্ত মেয়র ও সাধারণ সম্পাদক শাহবাগ থানা আওয়ামী লীগ), সব্যসাচি ভাস্কর্য উত্তর ঘোষ প্রমুখ।

১৭ সেপ্টেম্বর জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে শত কবির কবিতায় ফুটে ওঠে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের স্বপ্নীল বর্ণনা। বইটিতে ওপার বাংলার কবিরাও কবিতা লিখেছেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এবারের জম্মদিনে বইটি একটি উল্লেখযোগ্য উপহার বলে মনে করেন আগত অতিথিরা। এ বিষয়ে সম্পাদক রাশেদ হাওলাদার বলেন, আমার পরিশ্রম সফল হয়েছে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে নিবেদিত কবিতা লিখেছেন যারা তারাই আমার এই কাজটিকে সফল করায় সহায়তা করেছেন।আমি “শত কবিতায় শতায়ু প্রত্যাশায়” প্রকাশে শত কবিকে ধন্যবাদ জানাই।

এ বিষয়ে আজ (বৃহস্পতিবার) তরুন কবি বাহারুল ইসলাম বলেন, “রাশেদ হাওলাদারের প্রায় ২ বছরের মেধা ও মননের ফসল বইটিতে আমার ও একটি কবিতা রয়েছে। ‘শত কবিতায় শতায়ু প্রত্যাশা’ শিরোনামে লেখা বইটি দেখে বুঝতে বাঁকি থাকে না সম্পাদক কি বলেছেন। কবিতার মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দীর্ঘায়ু কামনা করেছেন সম্পাদক”।

তিনি আরো বলেন, বইটি ঘাসফড়িং প্রকাশনী থেকে প্রকাশিত হয়েছে। এটি প্রচ্ছদ করেছেন ইমনূজ্জামান এবং প্রধানমন্ত্রীর ছবি অংকন করেছেন জাকির হোসেন পুলক। বইটি পাঠক সমাবেশ এ পাওয়া যাচ্ছে, এটির মূল্য নেয়া হচ্ছে ৩ শত টাকা। তিনি বলেন, এ জাতীয় কাজ হওয়ার দরকার রয়েছে। কারণ বাংলাদেশের উন্নয়ন ও অসাম্প্রদায়িক একটি রাষ্ট্র বিনির্মানের জন্যে শিল্প সাহিত্যের ধারালো লেখা অতি জরুরি।

অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন কবি গোবিন্দ লাল সরকার এবং শেলী সেলিনা। অনুষ্ঠানে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক কবি তাদের স্বরচিত কবিতা পাঠ করেন।

 

কালের ছবি/রাজীব

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *