বাংলা সাহিত্যের প্রখ্যাত লেখক গুহ নেই

জাতীয় দেশজুড়ে বিশ্বজুড়ে শিক্ষা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: পশ্চিমবঙ্গের প্রবীণ সাহিত্যিক বুদ্ধদেব গুহ হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮৫ বছর।

গতকাল রোববার ( ২৯ আগস্ট) রাত সাড়ে ১১টার দিকে দক্ষিণ কলকাতার বেলভিউ হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। শ্বাসকষ্টজনিত কারণে ৩১ জুলাই থেকে এই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি।

ভারতী সংবাদ মাধ্যমের তথ্য মতে, চলতি বছরের এপ্রিলে করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন বুদ্ধদেব গুহ। ৩৩ দিন চিকিৎসাধীন থাকার পর করোনামুক্ত হয়ে বাড়ি ফেরেন তিনি। তবে এবার আর হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফেরা হলো না তার।

বেলভিউ হাসপাতাল জানিয়েছে, শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যার পাশাপাশি বুদ্ধদেবের মূত্রনালিতে সংক্রমণ ধরা পড়েছিল। এ ছাড়া তার লিভার ও কিডনিতেও সামান্য সমস্যা ছিল। ফের কোভিড পরীক্ষাও করা হয়েছিল। তবে তাতে সংক্রমণ ধরা পড়েনি। দৃষ্টিশক্তির সমস্যায় ভোগা বুদ্ধদেব বয়সজনিত নানা সমস্যাতেও ভুগছিলেন।

সাহিত্যিক বুদ্ধদেব গুহ ‘হলুদ বসন্ত’ উপন্যাসের জন্য ১৯৭৬ সালে আনন্দ পুরস্কার লাভ করেন। কিশোর সাহিত্যেও তার অবদান অনস্বীকার্য। তার সৃষ্ট ‘ঋজুদা’ বা ‘ঋভু’র মতো চরিত্র আকৃষ্ট করে রেখেছে কয়েক প্রজন্মের বহু কিশোর-কিশোরীর মনকে।

প্রবীণ সাহিত্যিক গুহ বহু কালজয়ী উপন্যাসের স্রষ্টা। তার উল্লেখযোগ্য লেখা— ‘জঙ্গল মহল’, ‘বাবলি’, ‘মাধুকরী’, ‘কোজাগর’, ‘হলুদ বসন্ত’, ‘একটু উষ্ণতার জন্য’, ‘কুমুদিনী’, ‘খেলা যখন’, ‘চানঘরে গান’ সাহিত্যজগতে চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে।

কালের ছবি/ রাজীব

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *